হ্যাকার থেকে বাঁচার উপায় শক্তিশালী Password যেভাবে সেট করবেন

0
134

(তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক): হ্যাকার থেকে বাঁচার উপায় হিসেবে অনলাইন অ্যাকাউন্টগুলির জন্য শক্তিশালী Password একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যদি কেউ আপনার একাউন্ট গুলি অ্যাক্সেস করে তবে আপনি তথ্য ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যাবেন। গত কয়েক বছরে পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা কয়েকগুণ বেড়েছে। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম এখন ইন্টারনেট এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যস্ত।

ডিজিটাল প্রযুক্তি দুনিয়ার চাকচিক্যে মানুষ যত আকর্ষিত হচ্ছে, অপরদিকে হ্যাকাররা তাদের পরিসরকে ততই বিস্তার করে বেআইনি কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। তাই এমত পরিস্থিতিতে, সামান্য একটা ভুলের কারণেও  আপনার যাবতীয় সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট যে কোন সময় হ্যাক হয়ে যেতে পারে। আর এমনটা হলে আপনার একাউন্টে থাকা সকল ব্যক্তিগত তথ্য হ্যাকারদের কাছে চলে যাবে।

 আমরা, অনেকেই পাসওয়ার্ড মনে রাখার সুবিধার্থে সহজ পাসওয়ার্ড সেট করে নিজের অজান্তে হ্যাকারদের কাজ সহজ করে দিয়ে থাকি। তাই আজ আপনাদের এমন কয়েকটি কৌশল সম্পর্কে জানাবো যেগুলিকে অনুসরণ করে সহজেই আপনি একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরী করতে পারবেন।

হ্যাকার থেকে বাঁচার উপায় পাসওয়ার্ডকে শক্তিশালী করার জন্য যে কৌশলগুলি প্রয়োগ করবেন:-

শক্তিশালী পাসওয়ার্ড এই ভাবে  সেট করুন

একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড সেট করার জন্য  অন্ততপক্ষে ৮(আট)টি অক্ষর ব্যবহার করা উচিত। এই ৮টি অক্ষরের মধ্যে আপার কেস বা ক্যাপিটাল লেটার এবং একটি লোয়ার কেস বা স্মল লেটার অবশ্যই রাখতে হবে। সাথে নম্বর এবং সিম্বলও ব্যবহার করুন। সহজেই যে কেউ অনুমান করে ফেলতে পারে এমন পাসওয়ার্ড কখনো সেট করা উচিন নয়। আর আপনার ব্যক্তিগত তথ্য যেমন, নাম, ঠিকানা, জন্ম তারিখ, ফোন নম্বর বা ই-মেইল ভুলেও পাসওয়ার্ডে অন্তর্ভুক্ত করবেন না। সর্বোপরি, কয়েকদিন অন্তর-অন্তর ব্যবহৃত পাসওয়ার্ডটি অবশ্যই পরিবর্তন করবেন। যার ফলে অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকবে।

আরও পড়ুন >>>  স্মার্টফোনে ইন্টারনেটের খরচ কমানোর সেরা ৫ উপায়

আরও পড়ুন >>> হারানো স্মার্টফোন এবং মোবাইল চোর খুঁজে দিবে থিপ গার্ড

পাসওয়ার্ডে যা কখনো ব্যবহার করবেন না

বর্তমানে সবারই ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রামের মত সোশ্যাল মিডিয়াতে অ্যাকাউন্ট আছে। এই অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড গুলো মনে রাখতে আমাদের অনেক সময়ে সমস্যায় পড়তে হয়। তাই সহজেই পাসওয়ার্ড মনে রাখার জন্য জন্য আমরা অনেকেই নিজেদের জন্ম তারিখ বা মোবাইল নম্বর পাসওয়ার্ড হিসাবে পচন্দ করে থাকি। যা সম্পূর্ণ ঝুঁকিতে ফেলে দিবে আপনার আমার একাউন্টগুলোকে। হ্যাকাররা আমাদের এই প্রাথমিক তথ্যাগুলো অনায়াসেই জোগাড় করে নিতে পারে। আর এই তথ্যগুলিকে হাতিয়ার করেই আমাদের পাসওয়ার্ড হ্যাক করতে পারে হ্যাকাররা। তাই কখনও আপনার নাম, জন্ম তারিখ বা মোবাইল নাম্বরকে ভুলেও কখনও পাসওয়ার্ড হিসাবে ব্যবহার করবেন না।

আলাদা আলাদা স্বতন্ত্র পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন

আমরা অনেকেই সহজে মনে রাখার জন্য  প্রত্যেকটি ডিজিটাল তথা সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে একটি পাসওয়ার্ডই ব্যবহার করে থাকি। যদি আপনিও এমনটা করে থাকেন তাহলে, এই অভ্যাস আপনাকে বিপদে ফেলতে পারে। কারণ, কখনও যদি হ্যাকার আপনার কোন একটি অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড উদ্ধার করতে সফল হয়ে যায়, তাহলে একই সাথে অন্যান্য অ্যাকাউন্টও হ্যাক করার চেষ্টা করবে। সেক্ষেত্রে, একই  পাসওয়ার্ড হলে প্রত্যেকটি অ্যাকাউন্টই হ্যাক করে নেওয়া তেমন কোন দুঃসাধ্য কাজ হবে না। তাই প্রত্যেকটি পৃথক সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টের জন্য পাসওয়ার্ডও আলাদা হওয়া উচিত।

হ্যাকারদের থাবায় না পড়তে চাইলে যা করবেন

আপনার নিজের সোস্যাল মিডিয়া একাউন্ট বা ইমেইল অ্যাকাউন্টকে হ্যাকারদের হাত থেকে সুরক্ষিত রাখতে চাইলে পাসওয়ার্ডের মধ্যে নাম্বর এবং অক্ষর ছাড়াও বিশেষ কিছু বর্ণের বা চিহ্নের ব্যবহার করুন। আপনি যদি পাসওয়ার্ড মনে রাখার ক্ষেত্রে দুর্বল হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রেও কৌশল আছে। আপনার ব্যক্তিগত নোটপ্যাডে বা ডায়েরিতে যাবতীয় অ্যাকাউন্ট গুলির পাসওয়ার্ড লিখে রাখুন এবং ভুলে গেলে তা নোট থেকে দেখে নিতে পারবেন। সাথে উপরোল্লেখিত প্রত্যেকটি ধাপ সমূহকে অনুসরণ করুন তাহলেই আপনার সোস্যাল মিডিয়া একাউন্ট বা ইমেইল অ্যাকাউন্ট সম্পূর্ণ নিরাপদে থাকবে।

পোস্টটি সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করে অন্যকে পড়ার সুযোগ করেদিনঃ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here