নুতন ধরণের পঙ্গপাল কক্সবাজার জেলার টেকনাফে

0
853

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান  কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পতঙ্গ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ রুহুল আমিন পোকাগুলোর নমুনা পরীক্ষা করার আগে এগুলোকে পঙ্গপাল বলে নিশ্চিত করতে রাজি নন । তবে স্থানীয় কৃষি কর্মকর্তারা এটিকে ক্ষতিকর মনে করছেন যেহেতু এই পোকা গাছপালা খেয়ে নষ্ট করে। তারা কীটনাশক স্প্রে করার পরামর্শ দিচ্ছেন ।

পঙ্গপাল সেদিকে অগ্রসর হয়, বাতাসের গতিপথ যেদিকে থাকে। তারা সবসময়ই নিম্নচাপ অঞ্চলের দিকে যায় যেখানে বৃষ্টি হয় এবং যেখানে শস্য উৎপাদনের জন্য আদর্শ জায়গা। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা’র তথ্য অনুসারে , মাঝারি আকৃতির পঙ্গপালের ঝাঁক আড়াই হাজার মানুষকে এক বছর খাবার ধ্বংস করতে পারে।

এই পোকার বংশবিস্তারের আদর্শ সময় গ্রীষ্মকালে সাধারণত মে থেকে জুন মাসে, বলেন ড. আমিন । ডিম থেকে পূর্নাঙ্গ রূপে তিন থেকে চার সপ্তাহের মধ্যেই যেতে পারে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here